আপডেট নিউজ লাইভ

বকশীগঞ্জে ১২ মাসে ৭ ধর্ষণ, ৩ খুন

লেখক: রতন ইন‌তিসার, বকশীগঞ্জ সংবাদদাতা
প্রকাশ: 1 month ago

Spread the love

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় ২০২২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বিগত ১২ মাসে ৭টি ধর্ষণ, ৩টি খুন অন্যান্য মামলা হয়েছে ১১৪টি। বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামলীগের সভাপতির বাসায় ডাকাতি, উপজেলা কমপ্লেক্সে একাধিক চুরি, উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যানের বাসায় একাধিকবার চুরি, বাসটারমিনালে চুরিসহ, হাসপাতালে চুরি, অপহরন, পুলিশের উপর হামলা, পুলিশের গাড়ীতে অগ্নি সংযোগসহ অসংখ্য অপরাধের ঘটনা ঘটেছে।

 

বকশীগঞ্জ থানায় দায়েরকৃত মামলার হিসেব অনুযায়ি বিগত ১২ মাসে ৭ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। তবে থানা ছাড়াও বিগত সময়ে বেশ কয়েকটি ধর্ষনের ঘটনায় মামলা হয়েছে আদালতে।
বিগত ১২ মাসে বকশীগঞ্জ থানায় খুন হয়েছে ৩জন। বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর গ্রামে পুলিশের উপর হামলা হয়েছে। পুড়ে দিয়েছে পুলিশের গাড়ী। পৌর শহরের নয়াপাড়ায় বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির বাসায় ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতরা প্রায় ২ কোটি টাকার মালামাল নিয়ে গেছে। মামলাও হয়েছে বকশীগঞ্জ থানায়। কিন্তু কোন মালামালই উদ্ধার হয়নি।
বকশীগঞ্জ উপজেলা ক্যাম্পাসে একাধিকবার চুরির ঘটনা ঘটেছে। কোন মালামাল উদ্ধার ও চোর গ্রেফতার হয়নি। পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্র বকশীগঞ্জ উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বাসাসহ শহরের অসংখ্য বাসায় চুরি হয়েছে। মালামাল উদ্ধার ও চোরের সন্ধ্যান মিলেনি।
বকশীগঞ্জ পৌর শহরের জনবহুল বাসটারমিনালে পায়েল টেলিকমসহ একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চুরির ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু উদ্ধার জিরো। অসংখ্য চুরির ঘটনা ঘটলেও বকশীগঞ্জ থানায় চুরির মামলা হয়েছে ৮টি।
গরুচুরির অথ্যাচারে অতিষ্ঠ কৃষক চোরের ভয়ে গোয়ালঘরে গরুর সাথে বসবাস করে আসছে। বিগত সময়ে চুরি যাওয়া কোন গরই উদ্ধার হয়নি।
বকশীগঞ্জ থানার মামলার হিসাব অনুযায়ি বিগত মাসে ১৪টি নারী নির্যাতন মামলা হয়েছে। মাদকের ভয়াল ছোবলে বকশীগঞ্জের যুব সমাজে মাদকাসক্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। থানার হিসেব অনুযায়ি ১২ মাসে বকশীগঞ্জ থানায় মাদকের মামলা হয়েছে ৫২টি।
অপহরণ, ডাকাতি, পুলিশের উপর হামলা , পুলিশের গাড়ীতে অগ্নিসংযোগ, খুন ও ধর্ষণ ছাড়াও অন্যান্য বিষয়ে বকশীগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে ১১৪টি। আদালতের মামলা গণনা করলে মামলার সংখ্যা আরও বাড়বে।
এব্যাপারে বকশীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ তরিকুল ইসলাম জানান, বিচারের জন্য সব গুলো মামলা আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিচার প্রার্থীরা আদালতের মাধ্যমে উপযুক্ত বিচার অবশ্যই পাবে।