আপডেট নিউজ লাইভ

“চান্স পেতে চাইলে স্বপ্নের বিশ্ববিদ্যালয়ে”

লেখক: আপডেট নিউজ লাইভ
প্রকাশ: 2 months ago

Spread the love

এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য কিছু কথা….

জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিতে এই তিনমাস ইম্পর্ট্যান্ট।

উচ্চশিক্ষা অর্জনে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ঝুড়ি মেলা ভার। খোলামেলা আর বড়সড় ক্যাম্পাস, গবেষণার সুযোগ, প্রতিষ্ঠিত প্ল্যাটফর্ম, পড়াশোনার উন্নত মান, কো-কারিকুলার এক্টিভিটিজ ইত্যাদি কারণে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এক্ষেত্রে যথেষ্ট এগিয়ে।
এজন্য এই ৩ মাস যা করতে হবে..

১. লক্ষ্য ঠিক রাখতে হবে সবার আগেঃ-

আগে দেখ কই কই এক্সাম দিতে পারবে।আসন সংখ্যা,নিজের পছন্দের সাবজেক্ট।

এরপর পাশাপাশি আরো ২/১ টা ইউনিভার্সিটি কে ব্যাকাপ হিসেবে রাখো।

২. তৈরি করতে হবে সুন্দর একটা পরিকল্পনা :

শুধু লক্ষ্য ঠিক করলেই তো আর হবে না। সেই লক্ষ্যের ঠিকঠাক বাস্তবায়নের জন্য সুন্দর একটা পরিকল্পনাও তৈরি করতে হবে। কিভাবে পড়াশোনা হবে, কিভাবে প্রস্তুতি শেষ হবে, কোন কোন বিষয় পড়তে হবে, কোন কোন টপিকস পড়তে হবে, সবকিছু কিভাবে ম্যানেজ করা হবে ইত্যাদি বিষয়ের পরিকল্পনা।সবকিছু মিলিয়ে ১০০ দিনের রুটিন করে সেটা ফলো করো।

৩. জানতে হবে প্রশ্ন পদ্ধতি, মানবন্টন, এবং অন্যান্য ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক তথ্যসমূহ ভালো করে জানতে হবে।

৪. বিগত বছরের প্রশ্ন সম্বন্ধে ধারণা :

বিগত বছরের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন সম্বন্ধে ভালো ধারনা থাকতে হবে।আর হ্যা ৬০-৭০% প্রশ্ন রিপিট হয়,সকল ইউনিভার্সিটি এর বিগত ১০ বছরের ব্যাখ্যা সহ সমাধান সলভ করতে হবে।
আর এজন্য একাধিক প্রশ্নব্যাংক কিনে টাকার অপচয় না করে,,
মাত্র ৩৮০ টাকায় #প্রশ্নব্যাংক চ্যালেঞ্জ বই কিনবে।এক বই এ বিগত ১০ বছরের ব্যাখ্যা সহ প্রশ্নব্যাংক +১০০% সমাধান পাবে।

৫. পড়তে হবে সর্বোচ্চ মনযোগী হয়ে :

অমনোযোগী হয়ে পুরো সাত খন্ড রামায়ণ পড়ে যদি, সীতা কার বাপ? এমন প্রশ্ন করা লাগে তাহলে নিশ্চয়ই সেই পড়ার কোন মানে হয় না। ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতির ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। দিনরাত এক করে পড়া লাগবে এমন কথা নেই। যাই পড় না কেন, সর্বোচ্চ মনযোগী হয়ে পড়। যাতে পরীক্ষায় পড়ে যাওয়া টপিক রিলেটেড কোন প্রশ্ন আসলে সঠিক উত্তরটা দিতে আসতে পারো।
আর শুধু একের পর এক বই কিনে টেবিল ভরিয়ে লাভ নেই,
কেউ যদি সিলেক্টেড ও এক্সামের জন্য উপযোগী বাছাইকরা সাজেশন বারবার পড়ো তাহলেও ৮০% কমন পাবে।
এরজন্য বাজারের একমাত্র বই
#ভার্সিটি চ্যালেঞ্জ।
এক বই বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান,আইসিটি,প্রশ্নব্যাংক, বিসিএস প্রশ্নব্যাংক পাবে।
দাম মাত্র ৩০০/ টাকা।

৬. নিজের মত করে পড় :

একেবারেই নিজের মত করে পড়। কোচিং সেন্টারের মেথড ফলো না করলে চান্স হবে না, অমুক তমুকের বলে দেওয়া মেথড কপি মারতে হবে এরকম কোন কথা নাই। কখন কি পড়বা, কিভাবে পড়বা, কতটুকু সময় ধরে পড়বা- এইসব তোমার একান্ত নিজস্ব ব্যাপার। এখানে নিজের স্বকীয়তা ধরে রেখে একদম ভালো লাগার মত করে পড়াশোনা করতে হবে। তোমার কি ভুলত্রুটি আছে, কিভাবে সেটা সংশোধন করা যাবে, তুমি নিজেই সেটা সবচেয়ে ভালো জানো এবং তুমি নিজেই সেটা সবচেয়ে ভালোভাবে খুঁজে বের করতে পারবে।

৭. কোয়ালিটিকেই গুরুত্ব দাও বেশী :

কোয়ানটিটি নয় ভর্তি পরীক্ষায় সফল হতে কোয়ালিটিটাই শেষ পর্যন্ত ম্যাটার করে। ছাড়া ছাড়া ভাবে সব পড়ার চেয়ে ঠিকঠাক ভাবে সামান্য পড়াটাও বেশী ইম্পর্ট্যান্ট।
গুচ্ছে শুধু মেইন বই হতে প্রশ্ন হবে।বই এর সব টপিক্স আগে না পড়া থাকলে এখন নতুন সম্ভব না।
তাই মেইন বই এর আলোকে রচিত ✅ভার্সিটি চ্যালেঞ্জ বই এর অধ্যায় ভিত্তিক ইম্পর্ট্যান্ট তথ্য গুলা পড়লেও ৮০%+ কমন সম্ভব।
৮. নিজের মধ্যে কনফিডেন্স রাখতে হবে।
৯. রিভাইজ..
বারবার রিভাইজ দিয়ে নিজের উইকনেস দূর করতে হবে।
১০. সুস্থ থাকতে হবে।

প্রশ্নব্যাংক চ্যালেঞ্জ ও ভার্সিটি চ্যালেঞ্জ বই নিকটস্থ লাইব্রেরি থেকে সংগ্রহ করুন।
সবার জন্য শুভকামনা রইলো।

ধন্যবাদ